হেমন্ত জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা

হেমন্ত শীতের আগেই আগমন করে। হেমন্তের ঝিরিঝিরি বৃষ্টি আর সকালের কুয়াশাই যেন প্রকৃতিতে জানিয়ে দিচ্ছে শীতের আগমন।

নভেম্বর মাসে শীতের আবহ শুরু হয়। বাতাসে হিসের ছোয়া গাঁ শিরশির করে তুলে। ঘাসের ওপর শিশির জমে থাকে। হেমন্তকেই বলা হয় শীতের পূর্বাভাস। হেমন্তের রাতে এখন মৃদু কুয়াশা, বাতাসে শীতের হিম হিম স্পর্শ। কুয়াশার আচল সরিয়ে শিশির বিন্দু মুক্তো দানার মতো দ্যুতি ছড়াতে শুরু করছে ভোরের নরম রোদে।

আর ষড়ঋতুর দেশে হেমন্ত মানেই শীতের আগমন বার্তা। শীতের দিনে দেখা যায় গাছের ঝরা পাতা, শিশির ভেজা ঘাস কিংবা ঘন কুয়াশার চাদরে ঢাকা প্রকৃতি।

পৌষ-মাঘ দুই মাস শীতকাল হলেও আমাদের দেশে শীত শুরু হয় কার্তিক মাসের মাঝামাঝি  সময় থেকে। সে অনুযায়ী শুরু হয়ে সারা দেশে শীতের আমেজ। বিকেল থেকে শীতের হাওয়া আর সন্ধ্যার পর থেকে শুরু হয়ে ভোরের হালকা কুয়াশায় সকালের সূর্য উঠার পর্যন্ত।

শীতে ভ্রমণঃ শীতকাল অনেকের কাছে আনন্দ আর অনেকের কাছে যন্ত্রনা। তবে বেশির ভাগ মানুষ শীতকালকে পছন্দ করে। শীতকালে বিভন্ন পর্যটনিয় এলাকায় ঘুরে বেড়ানো যায়। কারন শীতকালকে ভ্রমনের উপযুক্ত সময় মনে হয়। শীতকালীন ছুটি উপলক্ষে অনেকেই দেশ এবং দেশের বাইরে ভ্রমনে যান। অনেকে শীতে পরিবারকে নিয়ে দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার জন্য সারা বছর অপেক্ষা করে থাকেন।

শীতের পিঠাঃ শীতকালে নানা কারনে মানুষকে আনন্দ দেয়। কারন শীতের সময় রুচিশীল খাবারের আয়োজন চলে গ্রামে এবং শহরে। তবে শীতে সবচেয়ে বেশি আয়োজন হয় ভাপা পিঠার।

শীতের সন্ধ্যায় ভাপা পিঠা বাঙালিদের একটি মুখোরোচক খাবার। শীতের রাতে সব থেকে জনপ্রিয় ভাপা ও চিতই পিঠা ।

শীতে অসুখ-বিশুখঃ অপরদিকে শীত যেমন মানুষকে আনন্দ দেয়, তেমনি অনেক যন্ত্রনাও দেয়। শীতকালে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় সবাই কেমন অসুস্থ হয়ে পড়ছে। শীতের বেশিরভাগ সময় সরদি-কাশি লেগেই থাকে। তাই সবাই এ সময়টাতে সর্তক থাকা উচিৎ।

শীতকালে সবচেয়ে বড় সমস্যা ঠান্ডা জনিত রোগ। বয়স্কদের শ্বাসকস্ট, ছোটদের নিউমোনিয়া,  হাঁপানি, সর্দি-কাশি, হাত–পা ফাটা সহ বিভন্ন রোগ দেখা দিতে পারে। আমাদের সকলের উচিত সকল বিষয়ে সচেতনতা অবলম্বন করে থাকা। শীত আসছে আমাদের মাঝে, ঋতু পরিবর্তনের সময় রোগব্যধির প্রকোপ দেখা যায়।

শীতকালীন সবজিঃ শীতকালীন সবজি নিয়ে ব্যস্ত কৃষকরা তারা নতুন ভাবে বীজ রোপন করছে। কেউ আবাদ করছে, কেউ কেউ আবার সবজি বাজারে নিয়ে যাচ্ছে। হাট বাজারেও আসতে শুরু করেছে বিভিন্ন শীতকালীন সবজি যেমনঃ মুলাশাক, লালশাক, সরিষাশাক, ফুলকপি, বাঁধাকপি, মূলা, টমেটো, গাঁজর, দেশি মরিচ ইত্যাদি। 

লেখকঃ তাহমিনা ইয়াছমিন

আরও পড়ুনঃ
Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.