লাশের রাজনীতি ও ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের বিষয়ে কিছু কথা

দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সহযোগী ছাত্র সংগঠন হওয়ার কারনে নিবেদিত ছাত্রলীগের কর্মীদের পাশাপাশি এই সংগঠনে বর্তমানে মুখোশধারী ও অনুপ্রবেশকারীদের অবস্থান সর্বত্র বিরাজমান।

তাই কতিপয় বিপথগামী ও অতিউৎসাহী ছাত্রলীগের নেতিবাচক কর্মকাণ্ডের জন্য পুরো ছাত্রলীগকে দোষারোপ করা যাবে না। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আবরার হত্যাকান্ডে জড়িতদের স্হায়ী ভাবে বহিষ্কার করেছে। এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে দায়ীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে বিচার বিভাগের প্রতি অনুরোধ করা হচ্ছে।

কিন্তু আবরার হত্যা নিয়ে জামাত, ছাত্রশিবির, ছাত্রদল কোটা সংস্কার আন্দোলনের মুলহোতা সহ বামপন্থীরা চাচ্ছে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে। তারা আবরারের লাশের উপর ভর করে দেশকে অস্থিতিশীল করতে নানা প্রপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। এগুলো সম্পর্কে সচেতন দেশপ্রেমিক জনগণকে সজাগ থাকতে হবে।

আমি জামাত শিবির, ছাত্রদলের জ্বালাও পোড়াও ও হত্যার রাজনীতি আপনাদের স্বরন করে দেওয়ার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছি না। আপনারা সব জানেন এবং বুজেন। এদেশে কেহ ধোয়া তুলসী পাতা নয়।

দেশের সর্বোচ্চ মেধাবীরা পড়াশোনা করে বুয়েট, কুয়েট, চুয়েট, শাবি, সহ অন্যান্য সকল মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে। এদের শিক্ষার পেছনে রাষ্ট্রের অনেক অর্থ ব্যয় করতে হয়।

মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিং এর পড়াশোনা অনেকটা গবেষণাধর্মী ।এরা পড়াশোনা করে দেশকে প্রযুক্তি ও চিকিৎসা বিজ্ঞানের সর্বোচ্চ শিখরে নিয়ে যাবে । তাদের কাছে জাতির এটাই চাওয়া। তাদের তো রাজনীতি করার প্রয়োজন নেই। রাজনীতির জন্য রাষ্ট্রবিজ্ঞানের , আইনের, ছাত্ররাই যথেষ্ট।

তাই এখন সময়ের দাবি ইঞ্জিনিয়ারিং ও মেডিকেল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র রাজনীতি পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হোক।

ছাত্ররাজনীতি এ দেশে কোন অবস্থাতেই নিষিদ্ধ করা যাবে না সকল পর্যায়ে কারন এদেশের স্বাধীনতার ইতিহাস ছাত্রলীগের ইতিহাস। দেশের ক্লান্তি কালে একমাত্র আশার আলো ছাত্র সংগঠন গুলো।

কিন্তু সময়ের প্রয়োজনে ছাত্র রাজনীতির পরিধি কমিয়ে আনা যেতে পারে। এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও আইন যেগুলো রাষ্ট্রের সাথে সম্পৃক্ত সাবজেক্ট এসব সাবজেক্ট এ অধ্যায়নরত ছাত্র ব্যাতিত বাকিদের ছাত্র রাজনীতিতে জড়াতে নিরূৎসাহীত করা হোক।

সাওয়ান আহমদ চৌধুরী
আরও পড়ুনঃ 
Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.