তিন ধাপ এগিয়ে আরও শক্তিশালী এখন বাংলাদেশী পাসপোর্ট

পাসপোর্ট
পাসপোর্ট

পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ এখন ৯৭তম অবস্থানে আছে।  তালিকার প্রথমে রয়েছে ১৯০ দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশ সুবিধা নিয়ে জাপানের পাসপোর্ট।  তথ্য মতে দেখা যায়  ৪১ টি দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা রয়েছে বাংলাদেশের।  

বিশ্বময় পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে নিয়ে গত বুধবার একটি  তালিকা প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নাগরিকত্ব ও পরিকল্পনা বিষয়ক সংস্থা হ্যানলি অ্যান্ড পাসপোর্ট পার্টনার্স।  আগের বছরের তুলনায় এ র‌্যাকিংয়ে তিন ধাপ এগিয়ে এসেছে বাংলাদেশি পাসপোর্ট।  

২০১৮ সালে বাংলাদেশি পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে ছিল ১০০ তে।  বৈশ্বিক সূচক ২০১৯–এর তালিকায় দেখা যায়, পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশ র‌্যাকিংয়ে এগিয়ে।  বাংলাদেশের অবস্থান এখন ৯৭তম।  তবে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে ৭৯তম অবস্থানে আছে।

ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিংয়ে কোন দেশের পাসপোর্ট কতটা শক্তিশালী, তা নির্ভর করে ঐ দেশের পাসপোর্ট দিয়ে কতটি দেশে ভিসা ছাড়াই যাওয়া যায় তার ওপর ভিত্তি করে।  এখানে ভিসা ছাড়া যাওয়া বলতে বোঝায় ‘অন অ্যারাইভাল ভিসা’কে।

শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে বাংলাদেশের সঙ্গে আছে লেবানন, লিবিয়া ও দক্ষিণ সুদান।  আর নিচে অবস্থান করছে নেপাল ৯৮তম, পেলেস্টাইন ৯৯তম, সুদান ১০০তম, ইয়েমেন ১০১ তম, পাকিস্তান ১০২তম, সোমালিয়া ১০৩তম, সিরিয়া ১০৪তম, আফগানিস্তান ১০৫তম।

র‌্যাংকিংয়ে তালিকা

পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে তালিকার শীর্ষে থাকা জাপানের পাসপোর্ট বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী।  জাপানের পাসপোর্টধারীরা ১৯০ টি দেশে ভিসা ফ্রি ও অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পাচ্ছেন।  এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছে সিঙ্গাপুর ও দক্ষিণ কোরিয়ার পাসপোর্ট।  এদের পাসপোর্টধারীরা অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পাচ্ছেন ১৮৯টি দেশে।  তৃতীয় স্থানে আছে ফ্রান্স ও জার্মানি।  এই দুই দেশের পাসপোর্টধারীরা ১৮৮ দেশে ভিসা ফ্রি সুবিধা পাচ্ছেন।

চতুর্থ অবস্থানে আছে ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ইতালি ও সুইডেন।  ১৮৭ দেশে ভিসা-ফ্রি এবং অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পান এই চার দেশের পাসপোর্টধারী।  এবং পঞ্চম স্থানে আছে লুক্সেমবার্গ ও স্পেন ।

বর্তমানে বাংলাদেশের পাসপোর্ট ধারীরা ৪১টি দেশে ভিসা ফ্রি সুবিধা পাচ্ছেন।  অপরদিকে বিশ্বের ১৮৫টি দেশে যেতে বাংলাদেশিদের ভিসা প্রয়োজন হয়।

যে সব দেশে বাংলাদেশিরা ফ্রি ও অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা  পাচ্ছেন সে সব দেশের তালিকাঃ

এশিয়ার মধ্যে ভুটান, ইন্দোনেশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল ও  শ্রীলঙ্কা এবং পূর্ব তিমুর।

আফ্রিকার মধ্যে উগান্ডা, বেনিন, কেপ ভার্দে আইসল্যান্ড, কোমোরেস, দি জিবুতি, গাম্বিয়া, ঘানা, কেনিয়া লিসোথো, মাদাগাস্কার, মৌরিতানিয়া, মোজাম্বিক, রুয়ান্ডা, সিশিলিস, সোমালিয়া এবং টোগ।

ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে আছে বাহামা, বার্বাডোজ, ব্রিটিশ ভার্জিন আইসল্যান্ড, ডোমেনিকা, গ্রানাডা, হাইতি, জ্যামাইকা, মন্টসারাত, সেন্ট কিটস এন্ড নেভিস, সেন্ট ভেনিস এন্ড গ্রানাডিস, ত্রিনিদাদ ও টোবাকো এবং আমেরিকায় বলিভিয়া।

ওশেনিয়ার কুক আইসল্যান্ড ফিজি, মাইক্রোনেশিয়া, নিউয়ি, সামোয়া, ট্রুভালু, ভানুয়াতু।  এর মধ্যে অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা আছে ২০টি দেশে।

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.