আসুন আমরা বাংলা ব্লগ পড়ি

বাংলা ব্লগিং যাত্রা শুরু হয় ২০০৫ সালে সামহোয়্যার ইন ব্লগ এর হাত ধরে। বাংলা ব্লগের বিস্তার অনেক ধীরগতির হলেও বাংলা ব্লগ সমৃদ্ধ। কিন্তু এর চর্চা এখনো একটি শ্রেণীর চর্চা হিসবেই পরিচিত রয়ে গেছে।

বাংলা ব্লগ খুব রুগ্ন প্রকৃতির। বাংলা ব্লগের চেহারা চিন্তা করলে যা দাড়ায়- “সদ্য বড় কোন রোগ থেকে সেড়ে উঠা দুরন্ত কিশোর বালকের মায়ভরা শুষ্ক মুখ মন্ডল।“

যেন বেচারা মাঝে মাঝেই এমন অসুখ বাঁধায়। সেবা শুশ্রূষায় কিছুটা সুস্থ হয়েই আবার একটা রোগ বাঁধায়।

এর মাঝে কৈশোরে পা দিয়ে যেন সে দুই নৌকায় পা দিলো। শৈশবের পবিত্র মায়াবী চেহারাটা যেমন নাই তেমনি নব কৈশোরের পার্থিব চেহারাটাও রুক্ষতায় ছেয়ে যায় নি। সম্ভাবনায় জল জল করে।

এদিকে বাংলাদেশে বিগত কয়েক বছরে কিছু কুৎসিত ঘটনা বাংলা ব্লগের শৈশবে পলিও রোগ হয়ে দেখা দিয়েছিল।মুক্ত জ্ঞান চর্চার সুযোগ পেয়ে একদিকে যেমন কিছু ব্লগার হয়ে উঠলেন অসংযমী নাস্তিক, তেমনি আরেকদল নাস্তিকদের আস্তিক বানানোর চেস্টায় হয়ে উঠলেন খুনী।

এই করে কার কি লাভ হয়েছিল জানি না কিন্তু বাংলা ব্লগের বিশাল এক ক্ষতি হয়ে গেলো।বেশ কিছু ভালো ব্লগার হারালো বাংলা ব্লগ। উপরন্তু জন মানসে ব্লগার শব্দটা হয়ে গেলো নাস্তিক শব্দের নিকটবর্তী। ব্লগার শোনলেই সবাই কেমন নাস্তিক নাস্তিক গন্ধ পায়।

একদম গোবেচারা টাইপের মানুষ গুলো তাঁদের যুক্তি তর্কের সমাপ্তি টানে এইভাবে “এই সমাজের দশ জনে যা মেনে চলে তুমি তা মানো না ঠিক আছে, কিন্তু তাই বলে ইন্টারনেটের মাধ্যেমে সবাইকে ছড়ায়ে দিবা সে কেমন কথা ? আবার এই অজুহাতে তুমি তাকে হত্যা করবা ? ছি ছি। বুঝানো না, মামলা না, মোকদ্দমা না, হত্যা ছি ছি।”

যেন তাকে একজন ব্লগার ও একজন খুনিকে একই পাল্লায় মাপার সুযোগ ব্লগাররাই করে দিয়েছে।

সদ্য বালক বাংলা ব্লগের আরকেটা জটিল রোগ আছে। এই রোগ পুরাতন আমাশয়ের চেয়েও যাতনাময়। এই রোগের নাম অতিভক্তি। সারা জীবনই অসৎ কর্মে চলে গেছে কিন্তু ব্লগে একটু ইসলামিক গন্ধ পেলেই আমিন না বলে যান না।

এমন নানাবিধ জটিল রোগে আক্রান্ত হতে হতে বাংলা ব্লগ তাঁর শৈশবের কিউটনেস হারিয়ে ফেলেছে।

কিন্তু দুরন্ত কিশোরের চেহারায় যেমন একটা সম্ভাবনার উদয় হয় তেমনি অনেকগুলো সমৃদ্ধ ব্লগ বাংলা ব্লগের চেহারায় এক ঝিলিক আলো ছড়ায়।

শৈশবের শেষ প্রান্তে বাংলা ব্লগের পরিধি ব্যাপক বৃদ্ধি পায়। সাহিত্য,দর্শন বা মুক্তচিন্তার সীমানা পেরিয়ে বাংলা ব্লগ বহুমুখী হয়ে ওঠে।

সহজ ভাষায় বলতে গেলে বাংলা ব্লগ আজ সাম হোয়ার ইন ব্লগ,মুক্তমনা, সচলায়তন এর মতো সামাজিক গন্ডির মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। বাংলা ব্লগের আলোচ্য বিষয় গনিতের পাঠশালা থেকে বিজ্ঞান প্রযুক্তির লেটেস্ট আপডেট পর্যন্ত কাভার করে। মুক্তিযুদ্ধের নোটবুক থেকে শহুরে নিয়ন আলোর গল্প বলে।

ওমেন চ্যাপ্টার বা নারী বিষয়ক অন্যন্য ব্লগে আজ বাঙ্গালি নারী দুঃখ বলার জায়গা করে দিয়েছে। সরকারী মুক্তপাঠ তেমনি শহর আর গ্রামের দূরত্ব গুছিয়ে দিয়েছে। সাহিত্য বিষয়ক ব্লগে বাংলা ভাষার সমৃদ্ধি বলা বাহুল্য। খবর নির্ভর ব্লগ যেমন বিবিসি বাংলা , ডি ডব্লিউ, বিডিনিউজব্লগ, রোর বাংলা সহ অন্যন্য ব্লগ সাধারণ পাঠকের দরজায় কড়া নাড়তে পেরেছে।

তাছাড়াও মজার মজার কিছু ব্লগ যেমন শুধু সিনেমা জগত নিয়ে ব্লগ, সোশ্যাল মিডিয়া লাইফ নিয়ে ব্লক, কৃষি ব্লগ, স্বাস্থ্য ব্লগ, স্টার্ট আপ ব্লগ, হস্ত ও কুটির শিল্প নিয়ে ব্লগ প্রভৃতি সাধারণ পাঠকের গোচরে আসছে। 

বাংলা ব্লগের আলোচ্য বিষয়ের সাথে সাথে ব্লগের গুনগত মানের পরিবর্তন আসছে।ব্লগগুলো ঘুরে দেখলে একজন পাঠক নিজের পছন্দসই টপিকে মানসম্মত কিছু পান।

বাংলা ব্লগের ভবিষ্যৎ অনেক উজ্জ্বল। কেননা বাংলা ব্লগ মাটিতে আছাড় খেয়ে হাটতে শিখে গেছে। শৈশবে না বুঝে ভুল করলেও এখন ধরি মাছ না ছুঁই পানি শিখে গেছে। নিজের জ্ঞান চর্চার বাঁধা না হওয়ার স্বার্থে মূর্খদের সাথে কুতর্ক থেকে নিজেকে বিরত রাখতে শিখে গেছে। 
এদিকে ২৬ সেপ্তেম্বর ২০১৮ থেকে বাংলা ব্লগে বাড়তি আয়ের সুযোগ দিয়ে গুগল বাংলা ব্লগারদের কিছুটা আর্থিকভাবে সাবলম্বী হওয়ার সুযোগ দিয়েছে। একক ব্যক্তি বা ছোট দল নির্ভর ব্লগ গুলো উৎসাহ পাচ্ছে।

বাংলা ব্লগ যেমন বেড়েছে তেমনি বাংলা ব্লগ পাঠকও বেড়েছে।সোশ্যাল মিডিয়ায় বাংলা ব্লগ পোষ্ট শেয়ার করে করে ভাইরাল করে দেওয়ার ঘটনা যেমন কম না তেমনি নিয়মিত ব্লগ পাঠকও কম না। যদিও শতকরা হিসেবে তা অতি নগণ্য।

আমাদের একুশের চেতনাকে বুকে ধারণ করে বাংলা ব্লগ আজ বিশ্বজুড়ে বাঙালীদের এক মিলন মেলা, জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা শেয়ার করার অন্যতম মাধ্যম। শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এই ভাষা প্রযুক্তির উৎকর্ষের ফলে ক্রমশ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠা জ্ঞান চর্চার মাধ্যম স্ক্রীনে বাংলা ভাষাকে বাচিয়ে রাখার দায়িত্ব শুধু ব্লগার, লেখক বা রাষ্ট্রের নয়, এই দ্বায় সম্পূর্ণ পাঠকে।

আসন আমরা বাংলা ব্লগ পড়ি। অনলাইনে বাংলা চর্চার মাধ্যম বাংলা ব্লগ আমাদের চিন্তা চেতনার পরিচায়ক হোক।

Facebook Comments

faisal hawree

সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলে জন্ম। কাঁচ-পাকা চুল, দাঁড়িসমেত ইঁচড়ে পাকা যুবক।পেশাদার ট্র্যাভেল ব্লগার।ঘুরে বেড়াই ও লিখি।শখের বশে সাহিত্য চর্চা করি।সদালাপী,অলস ও স্বপ্নবাজ। জীবনের উদ্যেশ্য খুজে পাই নি।মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত।যতক্ষণ শ্বাস চলে ততক্ষণ সুবাহানাল্লাহ

faisal hawree has 14 posts and counting. See all posts by faisal hawree

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.