বিজিবির সাথে গোলাগুলিতে বিএসএফ সদস্য নিহত

রাজশাহীর চারঘাট সীমান্তে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ ও ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় এক বিএসএফ সদস্য নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে চারঘাট সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে।

বাংলাদেশের জেলেদের অভিযোগ ভারতীয় জেলেরা অবৈধ ভাবে অনেক দিন থেকেই বাংলাদেশ সীমান্তে ঢুকে মাছ শিকার করে নিয়ে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার বেআইনিভাবে পদ্মা নদীতে ভারতীয় জেলেদের ইলিশ শিকারকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনা সম্পর্কে বিজিবি জানায়, সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে চারঘাট বিওপি এলাকায় আনুমানিক ৩৫০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ঢুকে পদ্মা নদীতে ৩ জন ভারতীয় জেলেকে ইঞ্জিনচালিত নৌকা নিয়ে মাছ ধরতে দেখা যায়।

এ সময় বিজিবির টহল দল উপজেলা মৎস্য অধিদফতরের ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট আবু রায়হান এবং আরও দু’জন সহকারীসহ এক জেলেকে আটক করেন। বাকিরা পালিয়ে যায়।

পরে বিএসএফের ১১৭ ব্যাটালিয়নের কাগমারী বিওপি থেকে স্পিডবোটে ৪ জন সদস্য চারঘাট উপজেলার বালুঘাট এলাকার শাহারিয়াঘাটের বড়াল নদীর মুখে আনুমানিক ৬৫০ গজ বাংলাদেশের ভেতরে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করলে বিজিবির টহল দল বাধা দেয়।

ওই চারজনের মধ্যে একজন বিএসএফ ইউনিফর্ম পরা থাকলেও বাকিরা হাফপ্যান্ট ও গেঞ্জি পরা ছিল। বিএসএফ ওই জেলেকে জোর করে ফিরিয়ে নিতে চাইলে তাদের পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে নিয়ম অনুযায়ী ফেরত দেয়ার কথা বলে বিজিবি।

তাদের বলা হয়, আপনারাও অবৈধভাবে বাংলাদেশে এসেছেন, তাই আপনাদেরও নিয়ম অনুযায়ী পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করা হবে। তখন বিএসএফ সদস্যরা জোরপূর্বক জেলেকে নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চলে যেতে চাইলে বিজিবি সদস্যরা তাদের বাধা দেয়।

এ সময় বিএসএফ সদস্যরা উত্তেজিত হয়ে ফায়ার করতে করতে স্পিডবোট চালিয়ে ভারতের অভ্যন্তরে চলে যেতে থাকে। এরপর তখন বিজিবি টহল দলও আত্মরক্ষার্থে ফায়ার করে।

এ বিষয়ে অধিনায়ক রাজশাহী ব্যাটালিয়ন এবং কমান্ড্যান্ট ১১৭ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। পতাকা বৈঠকে থেকে জানা যায়, ওই ঘটনায় বিএসএফের ১ জন সদস্য নিহত এবং ১ জন সদস্য আহত হয়েছেন।

Mustafa Shakir
আরও পড়ুনঃ
মাসুদপুর সীমান্তে বিএসএফ এর গুলিতে বাংলাদেশী রাখাল নিহত
ধরে নিয়ে যাওয়া র‍্যাব সদস্যদের ফেরত দিয়েছে বিএসএফ!
এবার সিলেটের লন্ডন প্রবাসীকে পেঠাল বিএসএফ!
র‍্যাবের তিন সদস্যসহ পাঁচজনকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ!
 
Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.