আবরারকে সবচেয়ে বেশী মারধর করেছে মদপ্য অনিক সরকার!

মদ্যপ অবস্থায় অনিক সরকারই আবরার ফাহাদকে বেশি মারধর করেছে বলে জানা যায়।

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যায় ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত ১১ নেতার জড়িত থাকার প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি।

আর তাকে হত্যাকাণ্ডের সময় সবচেয়ে বেশি মারধর করে মদ্যপ অনিক সরকার।

আজ মঙ্গলবার তদন্ত কমিটির সদস্য ও ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইয়াজ আল রিয়াদ এ তথ্য সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। তিনি জানান, দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি আরও তথ্য-প্রমাণ পেলে জড়িত অন্যদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করবে।

গত সোমবার (৭ অক্টোবর) বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে শুধুমাত্র শিবির সন্দেহে পিঠিয়ে হত্যা করে বুয়েট ছাত্রলীগ নেতারা। রাত তিনটার দিকে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের দ্বিতীয়তলা থেকে আবরারের লাশ উদ্ধার করা হয়।

আবরার হত্যায় জরিত থাকায় ঐদিন বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাধক ও সহ-সভাপতিকে আটক করে পুলিশ।

ছাত্রলীগের তদন্ত কমিটি ও প্রত্যক্ষদর্শীর ফোনালাপে জানা গেছে, শিবির সন্দেহেই পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে আবরারকে। এতে ছাত্রলীগের সকাল, মনির, তানভীর, জেমি, তামিম, সাদাত, রাফিদ, তোহা, অনিকসহ ১০-১২ জন নেতাকর্মী জড়িত থাকার খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মারধর করেছে মদ্যপ অনিক। গত রোববার রাত ৮টা থেকে ১২টা পর্যন্ত ফাহাদের ওপর চলে নির্যাতন।

Mustafa Shakir
আরও পড়ুনঃ
Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.