সর্বাধিক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইউটিউব

 

সর্বাধিক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইউটিউব  আজ ১৪ বছরে পা দিল। আমেরিকান ভিডিও শেয়ারিং এই প্লাটফর্ম বর্তমান সময়ের সবচেয়ে সক্রিয় ও জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট। ২০০৫ সালের ১৪ই ফেব্রুয়ারি এই ওয়েবটি চালু হয়। এর সদরদপ্তর যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান ব্রুনো এর  ৯০১ চেরি এভিনিউ তে অবস্থিত। এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুসান ওজচিকি।

‘আলফাবেট ইনকর্পোরেটেড’  এর মালিকানায় এ সাইট টি প্রতিষ্ঠা করেছেন স্টিভ চেম, চ্যাড হার্লি এবং বাংলাদেশের বংশদ্ভুত জাওয়েদ কারিম। তারা তিনজনই ‘পেপ্যাল প্রতিষ্ঠান’ এর প্রাক্তন চাকরিজীবী ছিলেন। ২০০৬ সালের নভেম্বর মাসে গুগল ১.৬৫ বিলিয়ন ইউ.এস. ডলারে ইউটিউব ওয়েবসাইটটি (YouTube.com) কিনে নেয়। তখন থেকে এখন পর্যন্ত এটি গুগল এর আওতায় এটি অপারেট হচ্ছে।

যারা যারা ইউটিউব এর সদস্য হতে পারবেন তারা যেকোন সময় ভিডিও আপলোড, ভিডিও পর্যালোচনা,  ভিডিও দেখা ও তা  আদান-প্রদান সহ অভিমত প্রদান করার সুবিধা পাবে। পৃথিবীর যেসব জায়গায় ইউটিউব ব্লকড সেসব জায়গা ছাড়া সারাবিশ্বের সকল মানুষ এই সাইটটি ব্যাবহার করছে। চায়না, ইরান, সুদান, সাউথ সুদান, নর্থ কোরিয়া, তাজিকিস্তান সহ আরো অনেক দেশ ইউটিউব সাইটটিকে তাদের দেশে ব্লক করে দিয়েছে।

ইউটিউব থেকে ভিডিও দেখা ও শেয়ার করা ছাড়াও নতুন পছন্দের নির্মাতা ও চ্যানেল খুঁজে তাদের সাথে সম্পৃক্ত হওয়া যায়। বর্তমানে ইউটিউবের অনেক গুলো অ্যাপ আছে। যেমন– ইউটিউব গেমিং অ্যাপ এ গেমার গেম ও খেলতে পারে আবার ভিডিও এবং লাইভ স্ট্রিম সবকিছু দেখতে পারে। ইউটিউব মিউজিক এ অফিসিয়াল ও সিঙ্গেল অ্যালবাম, প্লেলিস্ট দেখা ও শুনা যায়। এটি মোবাইল ও ডেস্কটপ এর জন্য একটি মিউজিক স্ট্রিমিং পরিষেবা। আরো আছে বাচ্চাদের জন্য ইউটিউব; যেখানে সপরিবারে নতুন নতুন আবিষ্কার দেখা ও শিখা যায়।

YouTube GO তে পছন্দমতো ভিডিও ৩০ দিনের জন্য অফলাইনে সর্বনিম্ন ডাটা খরচ করে রাখা যায়। YouTube director অ্যাপ এ বিনামূল্যে নিজের ব্যাবসার ভিডিও বিজ্ঞাপন তৈরি করা যায়। এক্ষেত্রে iOS অ্যাপ এর রেডিমেট টেমপ্লেট ব্যবহার করতে হয়। YouTube নির্মাতা স্টুডিও তে নতুন ভিডিও ও প্লেলিস্ট পরিচালনা করা যায়, লোকের মন্তব্যের উত্তর দেওয়া সহ আরো অনেক কিছু করা যায়। YouTube Premium এ সকল ইউটিউব ওরিজিনাল এক্সেস করা যায়।

ইউটিউব ব্যবহার করতে হলে ব্যবহার কারীকে কিছু নিয়ম কানুন মেনে চলতে হয়। যেমন- এর লোগো টি নির্দিষ্ট। কোন ব্যাক্তি বা প্রতিষ্টান এই লোগোটি পরিবর্তন করতে পারবেনা। আবার এটি এমনভাবে ব্যবহার করতে হবে  যাতে সবসময় সহজে এটি পড়া যায়। এছাড়াও আরো অনেক নিয়ম নীতি মেনে চলতে হয়।

বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহার কারীর প্রায় এক তৃতীয়াংশ ইউটিউব দেখেন। প্রায় ২ হাজার বিলিয়নের ও বেশী লোক এটি ব্যবহার করে। বাণিজ্যিক ও অবাণিজ্যিক ভাবে ইউটিউবের ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। মানুষ লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছে এর মাধ্যমে।

লেখকঃ সামিয়া রহমান

আরো পড়ুনঃ

তথ্যপ্রযুক্তির প্রসারে বাড়ছে হ্যাকিং এর সম্ভাবনা

গ্রামীণ নারীদের ডিজিটাল বন্ধু তথ্য আপা

ব্লক থাকার পর আবারও খুলে দেওয়া হলো পাবজি!

শিক্ষকদের উপস্থিতি নিশ্চিতে বায়োমেট্রিক ডিজিটাল হাজিরা চালু

 
Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.